BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Wednesday, 21 Apr 2021  বুধবার, ৭ বৈশাখ ১৪২৮
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

রাজদীপকে মৃদু ভৰ্ৎসনা হিমন্তের, যোগাযোগ করল কংগ্ৰেসও

Bartalipi, বার্তালিপি, রাজদীপকে মৃদু ভৰ্ৎসনা হিমন্তের, যোগাযোগ করল কংগ্ৰেসও

কংগ্ৰেস ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দিয়ে এখন রাজদীপ গোয়ালার অবস্থা অনেকটা ‘না ঘর কা না ঘাট কা’৷ কারণ বিজেপি তাঁকে উধারবন্দে টিকিট দিতে চাইলেও তিনি শেষপৰ্যন্ত লক্ষীপুর থেকে দাঁড়ানোর বিষয়টিকে অগ্ৰাধিকার দেন৷ কিন্তু বিজেপি-র প্ৰদেশ নেতৃত্ব তাঁকে পরিস্কার জানিয়ে দেন, দীৰ্ঘদিন ধরেই কৌশিক রায় এই এলাকায় কাজ করছেন৷ সংগঠনকে মজবুত করার ব্যাপারেও উদ্যোগী হয়েছেন৷ এই অবস্থায় তাঁকেই দল টিকিট দেবে৷ বিজেপি দলের প্ৰাৰ্থী তালিকা ঘোষণার পর অনেকটাই ভেঙে পড়েন রাজদীপ গোয়ালা৷
কেন না মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সোনোয়াল করিমগঞ্জ সফরে এসে সাৰ্কিট হাউসে রাজদীপকে আশ্বাস দিয়েছেন যে, তাঁর লক্ষীপুরে টিকিট দেওয়ার দাবিটি প্ৰদেশ নেতৃত্ব সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করে দেখবে৷ পরবৰ্তীকালে তিনি পরিমল শিবিরে যোগ দিলে বেজায় ক্ষুব্ধ হন হিমন্তবিশ্ব শৰ্মা এবং শিলচরের সাংসদ রাজদীপ গোয়ালা৷ শুধু তা-ই নয়, গতকাল রাজদীপ গিয়েছিলেন হিমন্তবিশ্ব শৰ্মার সঙ্গে দেখা করতে৷ রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্ৰী তাঁকে স্পষ্ট জানিয়ে দেন, কেন তিনি উধারবন্দে গিয়ে প্ৰচারে নামলেন না? রাজদীপ এ ব্যাপারে সদুত্তর দিতে পারেননি বলেই বিজেপি-র রাজনৈতিক মহল দাবি করেছে৷
কিন্তু হিমন্ত অবশ্য তাঁকে বুঝিয়ে দেন, দল যদি আবার রাজ্যে ক্ষমতায় ফিরে আসে তা হলে তাঁর পুনৰ্বাসনের ব্যবস্থা হবে৷ বৈঠক থেকে উঠে আসার সময় রাজদীপ হিমন্তকে বলেন, আমার কাছে কংগ্ৰেস দলেরও অফার আছে, তখন স্বাস্থ্যমন্ত্ৰী বেজায় ক্ষেপে গিয়ে রাজদীপকে বলেন, ‘এরকম ভুল আর করো না৷ কারণ তা হলে পরে পস্তাতে হবে৷ এখন তোমার বয়স কম কাজেই বার বার দলবদল করে নিজের ভাবমূৰ্তিকে কালিমালিপ্ত করো না৷’ হিমন্তবিশ্ব শৰ্মার ঘনিষ্ঠ মহল এই দাবি করে জানিয়েছে, যদি রাজদীপ কংগ্ৰেসে যান তা হলে কৌশিককে জেতাতে কৰ্মীদের সংঘবদ্ধ হয়ে প্ৰচারে নামতে হবে৷ এই কৌশলকে সমৰ্থনও করেছেন বরাক উপত্যকার সাংগঠনিক সম্পাদক নিত্যভূষণ দে’ও৷
অন্যদিকে, কংগ্ৰেস থেকেও বেশ কিছু নেতা বিশেষত রকিবুল হুসেন এবং গৌরব গগৈ রাজদীপকে বাৰ্তা পাঠিয়েছেন, যদি তিনি ফিরে লক্ষীপুরে দাঁড়াতে রাজি হন তা হলে তাঁকে একটি মাৰ্জনাপত্ৰ দিতে হবে দলকে৷ তা হলে দল সামগ্ৰিক স্বাৰ্থে তাঁর বিষয়টি সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করে দেখবে৷ এখনও কংগ্ৰেস দল বরাকের প্ৰাৰ্থী তালিকা ঘোষণা করেনি৷ ফলে রাজদীপ যে লক্ষীপুরে প্ৰাৰ্থিত্ব পাবেন না তা বলা যায় না৷ কংগ্ৰেস মহল দাবি করছে, আচমকা রাজদীপকে টিকিট দিলে বৰ্তমান প্ৰাৰ্থী মুকেশ পাণ্ডের অনুগামীরা আবার ক্ষুব্ধ হয়ে কংগ্ৰেস ছাড়তে পারেন, এই ঝুঁকি নেওয়া কি এখন উচিত হবে?
অন্যদিকে, রাজদীপ গোয়ালা এ দিন টেলিফোনে জানান, সব দলই আমার সঙ্গে যোগাযোগ করছে৷ কিন্তু আগামীকাল আমি শিলচর এসে অনুগামীদের সঙ্গে বৈঠক না করে কোনও সিদ্ধান্ত নেব না৷ লক্ষীপুরের সাধারণ মানুষ যেহেতু দীৰ্ঘদিন ধরে আমার পাশে আছেন তাই তাদের সঙ্গে আলোচনা করেই আমি আমার পরবৰ্তী সিদ্ধান্ত নেব৷ তবে কোনও দলের টিকিট না পেলেও আমি যে সমাজসেবায় থাকব, সে কথাটা আমি এখনই নিশ্চিত করে বলতে পারি৷ রাজদীপ ঘনিষ্ঠ মহলের দাবি, উধারবন্দে দাঁড়ালে কাছাড় জেলায় চা-শ্ৰমিকদের একটি আসন কমে যেত৷ এ জন্য বাধ্য হয়েই আমি উধারবন্দ থেকে প্ৰতিদ্বন্দ্বিতার সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি৷