BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Wednesday, 21 Apr 2021  বুধবার, ৭ বৈশাখ ১৪২৮
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

জোট শরিক বাম-কংগ্রেসকে এড়িয়ে মমতার পাশে তেজস্বী

Bartalipi, বার্তালিপি, জোট শরিক বাম-কংগ্রেসকে এড়িয়ে মমতার পাশে তেজস্বী

আসবেন বলে আগাম প্রচার ছিল, তবু বাম-কংগ্রেসের ব্রিগেড সমাবেশের মঞ্চ এড়িয়ে গিয়েছিলেন তিনি। পরদিন, সোমবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব। লালুপ্রসাদের ছোট ছেলে মমতার পাশে দাঁড়িয়ে জানিয়ে দিলেন, 'পূর্ণ শক্তি দিয়ে মমতা দিদিকে সমর্থন করব। বাংলায় বিজেপিকে রুখতে দিদির হাত শক্ত করব আমরা।'


বাম-কংগ্রেসের সঙ্গেই মহাজোট গড়ে বিহার নির্বাচনে লড়েছিলেন তেজস্বী। ক্ষমতা দখলের লক্ষ্য পূরণ না হলেও নির্বাচনে রীতিমতো টক্কর দিয়েছিল মহাজোট। অথচ কলকাতায় থেকেও সেই জোট শরিকদের ডাকে সাড়া দিয়ে ব্রিগেডে যাননি তিনি। এ নিয়ে জল্পনা শুরু হয়। সূত্রের খবর, বাম-কংগ্রেসের ডাক এড়িয়ে মমতার সঙ্গে তেজস্বীর বৈঠকে অনুঘটকের কাজটি করেছেন আরজেডি-র আর এক বাম জোট শরিক সিপিআইএম লিবারেশনের নেতা দীপঙ্কর ভট্টাচার্য। 


উল্লেখ্য, বিহার নির্বাচনের পর বাংলার বামপন্থীদের অবস্থান নিয়ে সমালোচনার সুর শোনা গিয়েছিল দীপঙ্করের গলায়। তিনি বলেন, 'মূল শত্রু চিহ্নিত করার ক্ষেত্রে বাংলার বামপন্থীরা ভুল করছেন।' বিজেপি ও তৃণমূলকে এক দাঁড়িপাল্লায় ফেলার পক্ষপাতী যে তিনি নন, তা স্পষ্ট করে দেন দীপঙ্কর।


এ দিন নবান্নে মমতার সঙ্গে প্রায় ৪০ মিনিট কথা বলেন তেজস্বী। বৈঠক থেকে বেরিয়ে এসে মুখ্যমন্ত্রীকে পাশে নিয়ে তিনি বলেন, 'দেশে গণতন্ত্র বিপন্ন। যেভাবেই হোক বিজেপিকে রুখতেই হবে। লালুজিও মমতা দিদির প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছেন।' বাংলায় বিজেপির বিরুদ্ধে মমতার পাশে সব হিন্দিভাষী ও বিহারের মানুষকে একজোট হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আরজেডি নেতা। করোনা অতিমারির মোকাবিলায় মমতার ভূমিকার ভূয়ষী প্রশংসা করেন তেজস্বী। তিনি বলেন, 'বাংলার ভাষা, কৃষ্টি, সংস্কৃতি, মূল্যবোধে আঘাত হানছে বিজেপি। এর সুরক্ষায় মমতা দিদির পাশে দাঁড়াতে হবে।'


তেজস্বী বলেন, 'লকডাউনের সময় বিহারের পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করেছেন। ওই সময় এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন মমতা দিদি।' তিনি বলেন, 'ভোট এলেই বিজেপির নেতারা সব ফেলে দিল্লি থেকে বাংলা, বিহারে চলে আসেন। অন্তত সময় তাঁদের দেখা মেলে না।' তাঁর মতে, বাংলা ও বিহারের প্রেক্ষাপট, সমীকরণ আলাদা। তাই ব্রিগেডের আমন্ত্রণ ফিরিয়ে দিয়ে তিনি ছুটে এসেছেন নবান্নে। সম্ভবত তাই, সূত্রের খবর, জামুরিয়া, জোড়াসাঁকো ও এন্টালি-সহ চার হিন্দিভাষী অধ্যুষিত আসন বামেরা তাঁকে রাজি হলেও তেজস্বী মমতার দরবারে এসেই তাঁর সমর্থন জানিয়ে গেলেন। এখন তৃণমূল আরজেডি-র সঙ্গে কোনও রকম আসন দফায় যায় কিনা সেটাই হবে লক্ষ্যণীয়। এ ব্যাপারে অবশ্য তেজস্বীর মন্তব্য, 'দিদির লড়া মানেই আমার লড়া।'