BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Wednesday, 21 Apr 2021  বুধবার, ৭ বৈশাখ ১৪২৮
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

মোদি-শাহর নির্দেশেই আট দফা! 'খেলা'র শুরুতেই প্রশ্ন তুলে দিলেন মমতা

Bartalipi, বার্তালিপি, মোদি-শাহর নির্দেশেই আট দফা! 'খেলা'র শুরুতেই প্রশ্ন তুলে দিলেন মমতা

খেলা' শুরু। নির্বাচন কমিশন শুক্রবার ভোট নির্ঘণ্ট ঘোষণার পরই সরকারিভাবে ভোটের ঢাকে কাঠি পড়ে গেল। পশ্চিমবঙ্গে মোট ৮ দফায় ভোট হবে বলে জানিয়েছে কমিশন। ২৭ মার্চ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত মাসাধিককাল ধরে রাজ্যে চলবে ভোটগ্রহণ পর্ব। ভোট গণনা অবশ্য একই দিনে, ২ মে। তবে 'খেলা'র শুরুতেই 'ক্রীড়াসূচি' নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর প্রশ্ন, বিহারে ২৩৪ আসনে যদি তিন দফায় ভোট হতে পারে, তাহলে বাংলার ২৯৪ আসনে আট দফায় ভোট কেন? 

এ দিন ভোট নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর মমতার প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া, 'আমি শক্ড।' এর নেপথ্যে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার কলকাঠি নেড়েছে বলেই মনে করেন তিনি। মমতা বলেন, 'কমিশনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। কিন্তু অসমে যদি তিন দফায় ভোট হতে পারে, কেরল, তামিলনিডুতে যেখানে এক দফায় ভোট, তখন বাংলায় আট দফা কেন? কাদের সুবিধা করে দিতে?' এখানেই না থেমে তৃণমূল নেত্রী সরাসরিই বলেছেন, 'এক মাস ধরে আট দফায় ভোট কি নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ ঠিক করে দিয়েছেন! মিস্টার মোদি, মিস্টার অমিত শাহ জেনে রাখুন, বাংলার মানুষ এর জবাব দেবেন। একজন মহিলাকে এত ভয়!' মমতা বলেন, বিজেপির হাতে এজেন্সি আছে, বাংলায় ভোটের আগে টাকা পাঠাচ্ছে। আমরা সব বুঝি। কমিশনকে বলছি, টাকার খেলা বন্ধ করুন। প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্ষমতার অপব্যাবহার করছেন।' অভিযোগ তাঁর।


‌বাংলায় প্রথম দফার ভোট ২৭ মার্চ। ওই দিন হবে ৩০ আসনে ভোট। প্রথম দফায় ভোটগ্রহণ হবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, দুই মেদিনীপুরে। দ্বিতীয় দফার ভোট ১ এপ্রিল, ৩১ আসনে—বাঁকুড়া, দুই মেদিনীপুর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনায়। তৃতীয় দফায় ৩১ আসনে ভোট ৬ এপ্রিল হাওড়া, হুগলি, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনায়। চতুর্থ দফায় ৪৪ আসনে ভোট ১০ এপ্রিল হাওড়া, হুগলি, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, আলিপুর দুয়ার, কোচবিহারে। পঞ্চম দফায় ৪৫ আসনে ভোট ১৭ এপ্রিল উত্তর চব্বিশ পরগনা, নদিয়া, পূর্ব বর্ধমান, কালিম্পং, দার্জিলিং, জলপাইগুড়িতে। ষষ্ঠ দফায় ৪৩ আসনে ভোট ২২ এপ্রিল নদিয়া, উত্তর চব্বিশ পরগনা, উত্তর দিনাজপুর, পূর্ব বর্ধমানে। সপ্তম দফায় ৩৬ আসনে ভোট ২৬ এপ্রিল পশ্চিম বর্ধমান, মালদা, মুর্শিদাবাদ, কলকাতা দক্ষিণ ও দক্ষিণ দিনাজপুরে। অষ্টম দফায় ৩৫ আসনে ভোট ২৯ এপ্রিল কলকাতা উত্তর, মালদা, মুর্শিদাবাদ ও বীরভূমে।  


একই জেলায় একাধিক দিন ভোটের দিন পড়ায় অনেকেই অসন্তুষ্ট। রুষ্ট মমতাও। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি। সেখানে তিন দফায় ভোটের নির্ঘণ্ট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। তবু আত্মপ্রত্যয়ী তিনি। বলেছেন, 'যাই করুক, হারিয়ে ভূত করে দেব।' তবে ভোট নির্ঘণ্টে খুশি বিজেপি। শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন, 'আমরা চাই বাংলার মানুষ শান্তিতে ভোট দিন।' আর কংগ্রেস নেতা তথা বিধায়ক মনোজ চক্রবর্তী বলেন, 'অতীতের অভিজ্ঞতা যা, তাতে আট নয় বারো দফায় ভোট করা উচিত ছিল।' 



পশ্চিমবঙ্গে ২৯৪ আসনে বুথের সংখ্যা 

১,০১,৯১৬ টি। ২৯১৬-তে ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ছিল ৭৭,৪১৩। এবার রাজ্যে ভোটকেন্দ্র বেড়েছে ৩১.৬৫ শতাংশ। নির্বাচন কমিশনার জানান, পশ্চিমবঙ্গে ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠানো হয়েছে। সংবেদনশীল কেন্দ্রগুলিতে অতিরিক্ত বাহিনী পাঠানো হবে বলে অরোরা জানান। তিনি বলেন, রাজ্যে থাকবেন বিশেষ পুলিশ অবজারভার। বিবেক দুবে ও মৃণাল দাসকে এই কাজে নিযুক্ত করেছে কমিশন।‌ বিশেষ পর্যবেক্ষক হয়ে বাংলায় আসছেন অজয় নায়েক। বি মুরলী কুমারকে আয়-ব্যয় পর্যবেক্ষক হিসাবে নিয়োগ করেছে কমিশন। অনলাইনে মনোনয়ন জমা দিতে পারবেন প্রার্থীরা।‌ সশরীরে মনোয়ন জমা দিতে গেলে প্রার্থীর সঙ্গে দু'জন থাকতে পারবেন বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার। তবে পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবেকে নিয়ে আপত্তি তুলেছেন মমতা। তিনি বলেন, 'আমরা জানি, উনি কী করে থাকেন।'