BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Tuesday, 11 May 2021  মঙ্গলবার, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

তোষণ, ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতি পিছিয়ে দিয়েছে বাংলাকে, পরিবর্তনের ডাক মোদির

Bartalipi, বার্তালিপি, তোষণ, ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতি পিছিয়ে দিয়েছে বাংলাকে, পরিবর্তনের ডাক মোদির

বিজেপির হয়ে দ্বিতীয় ভোট প্রচারের মঞ্চ থেকে বাংলায় পালা বদলের ডাক দিয়ে গেলেন নরেন্দ্র মোদি। দলীয় প্রতীকের উল্লেখ না করেও বললেন, 'ফুল বদলালেই বাংলায় আসল পরিবর্তন আসবে।' 
মাত্র কয়েক মিটারের ব্যাবধানে দু'টি মঞ্চ। এর একটিতে অরাজনৈতিক সরকারি অনুষ্ঠান। অন্যটি অদূরেই, রাজনৈতিক সভার জন্য নির্ধারিত। ডানলপের সাহাপুরে প্রথম মঞ্চ থেকে সোমবার নোয়াপাড়া-দক্ষিণেশ্বর মেট্রোর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর ফলে এ দিন থেকে রেলপথে যুক্ত হল জগতবিখ্যাত দুই কালী তীর্থ— দক্ষিণেশ্বর ও কালীঘাট। তার আগে দ্বিতীয় মঞ্চ থেকে রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করে বাংলায় 'আসল পরিবর্তনের' ডাক দিলেন মোদি।
হুগলির মতোই আর এক ‌শিল্পাঞ্চল হলদিয়াতেও পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের অনুষ্ঠানে এসে রাজনৈতিক সভা করে গিয়েছিলেন মোদি। কিছুদিন আগের ওই রাজনৈতিক কর্মসূচি ছিল ভোটের বাংলায় দলের হয়ে তাঁর প্রথম প্রচার সভা। সেই নিরিখে এ দিনের সভা ছিল বাংলায় প্রধানমন্ত্রীর দ্বিতীয় রাজনৈতিক কর্মসূচি। আগামী ৭ মার্চ বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশের আগে এ দিনের সভা ছিল রাজনৈতিক দিক থেকে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।


পশ্চিমবঙ্গে পা দেওয়ার আগে এ দিন অসমের জনসভাতেই মোদি ইঙ্গিত দিয়ে এসেছিলেন, আগামী ৭ মার্চের মধ্যেই ভোটের দিন ঘোষণা হয়ে যেতে পারে। ওই সভায় তিনি বলেন, ৭ মার্চ যদি ভোটের দিন ঘোষণা হয় তাহলে তারপর তিনি ঘন ঘন অসম ও বাংলা সফরে আসবেন। গত ২৩ জানুয়ারির পর থেকে মোদির ঘন ঘন বঙ্গ সফরকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি তৃণমূল। শাসকদলের নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের কথায়, 'বাংলায় ডেলি প্যাসেঞ্জার হয়ে গেছেন মোদি।'


মোদি বলেন, 'পশ্চিমবঙ্গ পরিবর্তন চায়। রেল ও মেট্রো কানেক্টিভিটি মজবুত করার যাত্রা শুরু হল। বাংলাকে এর জন্য অভিনন্দন। বাংলার মানুষ পরিবর্তনের জন্য মনস্থির করে ফেলেছেন। বিশ্বের যেসব দেশ গরিবি থেকে উঠে আসতে পেরেছে, সেই সব দেশই পরিকাঠামো উন্নয়ন করেছে। এতে সার্বিক উন্নয়নের পথ সুগম হয়েছে। আমাদের দেশেরও সেই কাজ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এতদিন তা হয়নি। আর সময় নষ্ট নয়। আধুনিক পরিকাঠামো গড়ে তোলার কাজ শুরু হয়েছে। হাজার হাজার টাকা বিনিয়োগ করা হচ্ছে। বাংলায় রেল, সড়ক-সহ সব ধরনের পরিকাঠামো উন্নয়ন কেন্দ্রের অগ্রাধিকারের তালিকায়। এতে শিল্প সম্ভাবনার দরজা খুলে যাবে।'


মোদি বলেন, 'বাংলাকে পিছিয়ে দিয়ে যে অন্যায় হয়েছে, তার নেপথ্যে রয়েছে ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতি। ভোটের জন্য তোষণ।' প্রধানমন্ত্রীর দাবি, বিজেপি সরকার গড়ার পর বাংলার মানুষ নিজেদের গৌরবের কথা, সংস্কৃতির কথা বুক ফুলিয়ে বলতে পারবেন। সোনার বাংলায় সবার বিকাশ হবে। তুষ্টিকরণ হবে না। তোলাবাজি থেকে মুক্ত হবে বাংলা। স্বাধীনতার আগে বাংলা উন্নত ছিল, কিন্তু আগের শাসকরা উন্নয়নে নজর দেয়নি, বাংলাকে পিছিয়ে দিয়েছে। মা মাটি মানুষের নামে সরকার গড়ে উন্নয়নের বদলে তোষণের রাজনীতি করা হয়েছে। এই সরকারকে মানুষ ক্ষমা করবেন না।' 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে বিঁধে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলায় সিন্ডিকেট রাজ চলছে। বাংলায় বিনিয়োগ করতে চায় অনেকেই। কিন্তু এখানকার সরকার যেভাবে সিন্ডিকেটের হাতে তুলে দিয়েছে সবকিছু, তাতে অনেকেই বিমুখ হয়ে পড়েছেন। সিন্ডিকেট, তোলাবাজি, কাটমানি বন্ধ না হলে বাংলায় পরিবর্তন সম্ভব নয়। তাই 'আর নয় অন্যায়', আমরা 'আসল পরিবর্তন' চাই।