BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Sunday, 28 Feb 2021  রবিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

মুখ্যমন্ত্রীকে আধ লক্ষ ভোটে হারাব, পালটা চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর

Bartalipi, বার্তালিপি, মুখ্যমন্ত্রীকে আধ লক্ষ ভোটে হারাব, পালটা চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর

তাঁর খাসতালুক নন্দীগ্রামে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তিনিই পদ্ম প্রার্থী হবেন কিনা, তা এখনই স্পষ্ট করে জানাতে না পারলেও, শুভেন্দু অধিকারী সোমবারই বড় গলায় জানিয়ে দিলেন, বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে নন্দীগ্রামে পঞ্চাশ হাজার ভোটে হারাতে না পারলে তিনি রাজনীতিই ছেড়ে দেবেন। এই পালটা চ্যালেঞ্জে আরও নজরকাড়া হয়ে উঠল নন্দীগ্রামের লড়াই।


এদিনই তেখালির সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, নন্দীগ্রামে তিনিই হবেন দলের প্রার্থী। আর এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে হরিশ চ্যাটার্জি রোডে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির অদূরে রাসবিহারী মোড়ে দাঁড়িয়ে তাঁর দিকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন শুভেন্দু অধিকারী। টালিগঞ্জ মেট্রো থেকে রাসবিহারী পর্যন্ত রোড শোয়ের পর গেরুয়া সভামঞ্চে দাঁড়িয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে পাশে নিয়ে নন্দীগ্রামের প্রাক্তন বিধায়ক বলেন, 'শুনুন মাননীয়া, আপনাকে নন্দীগ্রামে আধ লাখ ভোটে হারাব। নাহলে আমি রাজনীতি ছেড়ে দেব।'


তাহলে কি নন্দীগ্রামে তিনিই হচ্ছেন মমতার বিরুদ্ধে বিজেপির প্রার্থী? এই কৌতূহলের জবাবে শুভেন্দুর ব্যাখ্যা, বিজেপি তৃণমূলের মতো 'প্রাইভেট কোম্পানি' নয়, অনুশাসন মেনে চলা দল। তাই কোনও সভায় দাঁড়িয়ে চটজলদি বলে দেওয়া যায় না কোথায় কে প্রার্থী হবেন। তবে নন্দীগ্রামে যাকেই টিকিট দিক দল, 'মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমি হারাবই হারাব।' ঠিক এই ভাষাতেই শুভেন্দু এ দিন পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন তাঁর পূর্বতন নেত্রীর দিকে। তাঁর দাবি, নন্দীগ্রামের জন্য কিছু করেননি মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, 'মাননীয়া, আপনি সেই পাঁচ বছর আগে নন্দীগ্রামে গিয়েছিলেন। ভোটের আগে নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়েছে। মানুষ সব জানেন।'


বঙ্গ রাজনীতির এই 'সুপার সোমবারে' মোটেই শান্তিতে মেটেনি শুভেন্দু-দিলীপের রোড শো। বিকেল সাড়ে চারটা নাগাদ তাঁদের সুসজ্জিত ট্রাক টালিগঞ্জ থেকে মুদিয়ালির কাছে পৌঁছতেই দেশপ্রাণ শাসমল রোড থেকে মিছিল লক্ষ করে ইট পাটকেল ছোড়া হয়।‌ বিজেপির অভিযোগ, হামলাকারীদের হাতে তৃণমূলের পতাকা ছিল। অন্যদিকে, তৃণমূলের অভিযোগ, মিছিল থেকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে মিছিল থেকে প্ররোচনা দেওয়া হয়। মিছিল থেকে বিজেপির কর্মীরাও তাড়া করে গিয়ে আশপাশের বাড়িতে ইট পাটকেল ছোড়ে। কিছু বাইক ভাঙচুর করা হয়। গোটা এলাকা কিছুক্ষণের জন্য রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়।পরে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। ইটের ঘায়ে জখম হন বেশ কয়েকজন।