কাগজ কলের জমিতেই কি যাচ্ছে মাল্টি মডাল লজিস্টিক পাৰ্ক?

কাগজ-কলের-জমিতেই-কি-যাচ্ছে-মাল্টি-মডাল-লজিস্টিক-পাৰ্ক!
কাছাড়ের শিলচর থেকে সরে গিয়ে মাল্টি-মডাল লজিস্টিক পাৰ্ক এখন হতে পারে পাঁচগ্ৰামে কাগজ কলের জমিতে৷

বার্তালিপি এক্সক্লুসিভ

অংশুমান আচার্য

৩০ অক্টোবর : শেষমেশ কাছাড় জেলা থেকে কি সরে যাচ্ছে সাংসদ ডাঃ রাজদীপ রায়ের স্বপ্নের প্ৰকপ্ল মাল্টি-মডাল লজিস্টিক পাৰ্ক? এমএমএলপি-র নতুন ঠিকানা কি হতে চলেছে রাজ্য সরকার অধিগৃহীত হাইলাকান্দি জেলার পরিত্যক্ত পাঁচগ্ৰাম পেপার মিল এলাকা? চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে এর সঙ্গে যুক্ত কেন্দ্ৰ-রাজ্যের সংশ্লিষ্ট সরকারি বিভাগগুলিকে নিয়ে অসমের শিল্প ও বাণিজ্য দফতরের সচিব ডাঃ এস লক্ষ্মণনের সঙ্গে কাছাড় ও হাইলাকান্দির জেলাশাসকের যে ভিডিও কনফারেন্স হয়েছে, এতে এমনই ইঙ্গিত পাওয়া গেছে৷ 

কাছাড় ও হাইলাকান্দি দুই জেলা প্ৰশাসন সূত্ৰেই জানা গেছে, কাছাড়ের শিলচর থেকে সরে গিয়ে মাল্টি-মডাল লজিস্টিক পাৰ্ক এখন হতে পারে পাঁচগ্ৰামে কাগজ কলের জমিতে৷ তবে হাতছাড়া হলেও লজিস্টিক পাৰ্কের নদী সংযোগী ইউনিট টি অন্তত শালচাপড়ায় রাখার এখনও চেষ্টা চালানো হচ্ছে৷ সূত্ৰ জানিয়েছেন, লজিস্টিক পাৰ্কের জন্য কাছাড়ের শালচাপড়ায় পরপর দু’দুটি জায়গা দেখা হলেও ওই এলাকার নাগরিকরা দফায় দফায় আপত্তি জানানোয় বাধ্য হয়ে সাইট বাতিল করতে হয়েছে৷ এরমধ্যে প্ৰকল্পের জন্য প্ৰয়োজনীয় উপযুক্ত জমি কাছাড়ের অন্যত্ৰ খুঁজে না পাওয়ায় শেষ পৰ্যন্ত  পাঁচগ্ৰামের কাগজ কলের জমি নিয়েই আলোচনা শুরু হয়েছে সরকারি স্তরে৷

মাল্টি-মডাল লজিস্টিক পাৰ্কের জন্য জমি দেবে রাজ্য সরকার৷ কেন্দ্ৰীয় ভূতল, সড়ক পরিবহণ ও হাইওয়ে মন্ত্ৰক থেকে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল পাৰ্কের জন্য ৮০ একর জমির প্ৰয়োজন৷ সে কথা মাথায় রেখে কাছাড় জেলা প্ৰশাসন দু’তিনটি সাইট পরিদৰ্শনের পর শালচাপড়ার খাস জমিকেই চূড়ান্ত করতে চাইছিল৷ দু’টি জায়গা দেখা হয়েছিল শালচাপড়ায়৷ প্ৰথমটি শালচাপড়া আনোয়ার কাছে৷ অন্যটি পুরনো পেট্ৰোল পাম্প লাগোয়া৷ 

ডাঃ রাজদীপ রায় বার কয়েক প্ৰশাসনিক শীৰ্ষ কৰ্তাদের নিয়ে ওই দু’টি জায়গা পরিদৰ্শন করেছেন৷ দু’টি সাইটের আশপাশের বাসিন্দাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বহুবার৷ কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি৷ দু’টি জমির জনবসতিপূৰ্ণ যেসব অংশ এমএমএলপি-তে ঢুকছিল, এরমধ্যে প্ৰত্যেক পরিবারকে প্ৰকপ্ল এলাকার কিছুটা দূরে বিকল্প খাস জমি অথবা পূৰ্ণ আৰ্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে আশ্বস্তও করা হয়েছিল৷ এরপরও বাসিন্দারা জমি দিতে বা ছাড়তে রাজি না হওয়ায় বাধ্য হয়ে সরে আসতে হয়েছে জেলা প্ৰশাসনকে৷ 

এ ছাড়া, শালচাপড়ায় পুরনো পেট্ৰোল পাম্প লাগোয়া যে ৫০ একর জমি এমএমএলপির জন্য ভাবা হয়েছিল সেখানে বাধ সেধেছে নেপকোর বেশ কিছু বৈদ্যুতিক টাওয়ারও৷ গোটা এলাকায় নেপকোর অন্তত ১০টি টাওয়ার রয়েছে, যেখান থেকে বিদ্যুতের হাইটেনশন লাইন গেছে ত্ৰিপুরার পালাটানা বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্ৰ পৰ্যন্ত৷ ফলে প্ৰশাসনিক সূত্ৰটি জানিয়েছেন, লজিস্টিক পাৰ্ক বানাতে গিয়ে ওই টাওয়ারগুলি কোনওভাবেই স্থানান্তর সম্ভব নয়৷ তবে টাওয়ার এলাকা বাদ দিয়েও জমি চিহ্নিত করা যায় কি না সেই চেষ্টায়ও কোনও ত্ৰুটি রাখেনি প্ৰশাসন৷  

এই পরিস্থিতিতে অচলাবস্থা কাটাতে শালচাপড়া ব্লক অফিসে গত ৬ আগস্ট কাছাড়ের  জেলাশাসক রোহন কুমার ঝাঁ সহ সাংসদের উপস্থিতিতে বাসিন্দাদের সঙ্গে শেষ বৈঠক হয়েছিল৷ সেখানে প্ৰকপ্লের নিৰ্মাণ সংস্থা এনএইচআইডিসিএল-এর কৰ্তারাও ছিলেন৷ কিন্তু বাসিন্দাদের চরম আপত্তিতে ওই বৈঠক ভেস্তে যায়৷ ফলে বিকপ্ল জমির সন্ধান করতে গিয়েই সাংসদের স্বপ্নের প্ৰকপ্ল কাছাড় জেলার হাতছাড়া হতে চলেছে৷ 

এ দিকে, এমএমএলপি বাস্তবায়নে বিকপ্ল জমির জন্য দুৰ্গাপুজোর আগে ২৯ সেপ্টেম্বর রাজ্যের শিল্প ও বাণিজ্য দফতর যৌথ ভিডিও কনফারেন্সে মিলিত হয় কাছাড় ও হাইলাকান্দির জেলাশাসকের সঙ্গে৷ বিভাগীয় সচিব ডাঃ এস লক্ষ্মণনের পৌরোহিত্যে ওই কনফারেন্সেই প্ৰস্তাব আসে প্ৰকপ্ল পাঁচগ্ৰামের পরিত্যক্ত কাগজ কলের জমিতে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার৷ 

লজিস্টিক পাৰ্ক যেহেতু নদীপথ, রেল ও সড়ক পথের সঙ্গে সংযোগ রেখে তৈরি করতে হয়, এ ক্ষেত্ৰে কাগজ কলের জমির বাড়তি সুবিধে হল এখানে আগে থেকেই রেল লাইন অন্তৰ্ভুক্ত রয়েছে৷ এ ছাড়া কাগজ কলের জমিটি ৩৭ নং জাতীয় সড়কের একেবারে পাশে৷ ফলে সরকারের তরফে অধিগ্ৰহণ করা কাগজ কলের জমিতে এমএমএলপি হলে একদিকে কারোর কোনও আপত্তি থাকবে না৷ অন্যদিকে, শালচাপড়ায় বরাক নদীর পাড়ে যদি প্রকল্পের রিভার ইউনিট গড়ে তোলা হয় তা হলে এর দূরত্ব চার থেকে পাঁচ কিলোমিটার হবে৷ 

শুধু তা-ই নয়, ডাঃ লক্ষ্মণনের ভিডিও কনফারেন্স সূত্ৰে আরও জানা গেছে, চাইলে শালচাপড়ার পাশাপাশি পাঁচগ্ৰামেও নদীর সঙ্গে সংযোগ স্থাপন সম্ভব হবে লজিস্টিক পাৰ্কের৷ ওই ভিডিও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে, কাগজ কলে মোট ১৮০০ একর জমি রয়েছে৷ সেখান থেকে লজিস্টিক পাৰ্কের জন্য ৮০ একর নেওয়া হবে৷ শালচাপড়াই হোক বা পাঁচগ্ৰাম, প্ৰকপ্লের সঙ্গে যুক্ত করা হবে ন্যাশনাল ওয়াটারওয়েজ-১৬-কে৷ সব কিছু ঠিকঠাক চললে, নতুন করে কোনও আপত্তি না উঠলে বিভাগীয় পরবৰ্তী বৈঠকে লজিস্টিক পাৰ্কের জন্য কাগজ কলের জমিই চূড়ান্ত হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে সূত্ৰটি৷



Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Total 7 Posts. View Posts


About us

প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার যুগে খবরের সত্যতাটির পক্ষপাতদামুক্ত উদ্যোগ / দীক্ষা প্রয়োজন। ক্লান্তিকর সংবাদগুলি আর সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে না। অভ্যন্তরীণ খবরে বৈশ্বিক কোণ থেকে বর্ণিত করার লক্ষ্যে, "বার্তালাপি ডিজিটাল" ডিজিটাল সাংবাদিকতার মাঠে প্রবেশ করেছে। শিরোনামের মিশ্রণটি তার লক্ষ্য এবং লক্ষ্যটির স্ব-ব্যাখ্যামূলক। বৈশিষ্ট্যগুলি, নিউজফ্ল্যাশগুলি এর মাধ্যমে একটি প্ল্যাটফর্মে সমস্ত সিঙ্ক করা হয়, এটি বারাকের নেটিজেনদের একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আভা দেয়। বার্তালাপি ডিজিটাল তাই ডিজিটাল ভারসাম্য পূরণের প্রতিশ্রুতি দেয় যা এটি ডিজিটাল বিবর্তনের যুগে একটি সংবাদ সংস্থা হিসাবে চিহ্নিত করবে




Follow Us