BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Friday, 26 Feb 2021  শুক্রবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

অনুপ্ৰবেশ রুখতে  মেঘালয়ে আইএলপি জরুরি, আন্দোলনে কমসো

Bartalipi, বার্তালিপি, অনুপ্ৰবেশ রুখতে  মেঘালয়ে আইএলপি জরুরি, আন্দোলনে কমসো

মেঘালয়ে ফের ব্ৰিটিশ আমলের মতো ইনার লাইন পারমিট চালুর জোরালো দাবি উঠেছে৷ খাসি, জয়ন্তিয়া সহ রাজ্যের গারো হিলসের ৰ্ষোলোটি সংগঠনের একটি যৌথ মঞ্চ পথে নেমেছে এই গণদাবি নিয়ে৷ শনিবার রাজ্যজুড়ে প্ৰতিবাদী কৰ্মসূচি করেছে কনফেডারেশন অব মেঘালয় সোশ্যাল অৰ্গানাইজেশন (কমসো)৷ শিলং ও তুরাতে পৃথক পৃথক   বিক্ষোভ কৰ্মসূচিতে শামিল হন সংগঠনের কর্মকর্তারা।আইপিএল চালু সহ সিএএ বাতিলের দাবিতে সরব হয় কমসো৷

কমসো’র চেয়ারম্যান রবাৰ্ট খারজহরিন জানান,  এই দাবি নতুন কিছু নয়৷ বহুদিন ধরেই রাজ্যের আমজনতার হয়ে এ নিয়ে আওয়াজ তুলছে কমসো৷ মূলত মেঘালয়ের সুরক্ষার স্বাৰ্থেই এই  দাবিতে নাছোড় যৌথ মঞ্চ৷

কেন পুরোদমে ইনার লাইন পারমিট চাইছে মঞ্চ? তার গুরুত্বই বা কী? এ প্রশ্নে চেয়ারম্যান রবাৰ্ট-এর যুক্তি, মেঘালয়ের ৯৭ শতাংশ এলাকাই তফশিলি অন্তৰ্ভুক্ত৷ আর কেন্দ্ৰের নীতি-নিয়ম অনুযায়ী নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) লাগু হবে না এখানে৷ কিন্তু বাকি ৩ শতাংশ অঞ্চলই রাজ্যের নিরাপত্তার জন্য অশনিসঙ্কেত৷ কারণ, ওই এলাকাগুলো বাংলাদেশ সীমান্তে থাকায় অনুপ্ৰবেশের সম্ভাবনা অনেক বেশি৷ সীমান্তবৰ্তী এসব এলাকাকে ভারতে বেআইনিভাবে প্ৰবেশের হটস্পট বলাও চলে৷ আর এখানেই ইনার লাইন পারমিটের প্ৰয়োজনীয়তা সঠিক অৰ্থেই যুক্তিযুক্ত৷ কারণ, এই আইন লাগু থাকলে সুরক্ষিত এলাকায় সীমিত সময়ের জন্যই চলাচলের অনুমতি পাবে যে কেউ৷ বেআইনি ও ইচ্ছেখুশি বসবাসের সুযোগ থাকবে না৷ রাজ্যের সুরক্ষাও বজায় থাকবে৷

চেয়ারম্যান রবাৰ্ট আরও জানান, ২০১৩-তে রাজ্যে কংগ্ৰেস সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন আইপিএল রূপায়ণের দাবি উঠেছিল৷ পরে ২০১৬ সালে মেঘালয় রেসিডেন্টস সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাক্ট পাস হয়৷ তার মাধ্যমে  কিছুটা হলেও প্ৰত্যাশার জায়গা তৈরি হয়৷ কারণ, রাজ্যে অবৈধ বসবাস সম্পৰ্কে যাচাইয়ের বিকপ্ল ছিল৷ তবে, এ বছরের মাৰ্চ মাসে মেঘালয় রেসিডেন্টস সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যামেন্ডমেন্ট বিল (এমআরএসএসএবি) হতাশা বাড়িয়েছে৷ কারণ, আজ অবধি বাস্তবায়ন হয়নি৷ সংশোধনী আইন অনুযায়ী, ভাড়াটে ও বাইরের চলাচলাকারীরা ৪৮ ঘণ্টার বেশি রাজ্যে থাকলে তাঁকে নিজের সম্পৰ্কে  সম্পূৰ্ণ তথ্য সরকারকে জানাতে হবে৷ কিন্তু এই নিয়মশৃঙ্খলা এখনও রয়েছে খাতায়-কলমে৷ পাশাপাশি আইএলপি-এর উদ্দেশ্যপূৰ্তিতে নতুন আইন প্ৰত্যাশামতো নয়, মন্তব্য খারজহরিনের৷ তাই এ বারে দাবি আদায়ে জোরদার আন্দোলনই শেষ কথা, সাফ জানিয়ে দেন তিনি৷  

উল্লেখ্য, ইতিবাচক প্ৰতিশ্ৰুতি পেয়ে বছরখানেক আগে এই ইস্যুতে আন্দোলন প্ৰত্যাহার করে নিয়েছিল সংগঠন৷ ২০১৯-এর ১৮ ডিসেম্বর কেন্দ্ৰের কাছে পেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়ে মেঘালয় বিধানসভা সৰ্বসতিক্রমে রাজ্যে আইএলপি লাগুর প্ৰস্তাবও পাস করেছিল৷ মুখ্যমন্ত্ৰী কনরাড সাংমা গুত্বপূৰ্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন এতে৷