BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Monday, 01 Mar 2021  সোমবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

শীতের শুরুতেই বাড়ছে করোনা, চরম সতর্ক থাকতে পরামর্শ অধ্যক্ষ বেজবরুয়ার

Bartalipi, বার্তালিপি, শীতের শুরুতেই বাড়ছে করোনা, চরম সতর্ক থাকতে পরামর্শ অধ্যক্ষ বেজবরুয়ার

শীতের মরশুমে ঠাণ্ডার প্রকোপে বাড়তে পারে করোনা। এমন ইঙ্গিত আগাম দিয়ে রেখেছিলেন দেশের নামিদামি চিকিৎসকরা। এমনকী এ অঞ্চলের পরিস্থিতি নিয়েও একই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন শিলচর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা: বাবুলকুমার বেজবরুয়া। বরাক উপত্যকায় বিশেষ করে কাছাড় জেলায় এই ইঙ্গিত কি বাস্তবের সঙ্গে মিলে যাওয়ার পথে ? জেলার করোনা সংক্রমণের তথ্যে চোখ রাখলে দেখা যায় নভেম্বর মাসের পর পয়লা ডিসেম্বর থেকে একটি, দুটি করে হলেও বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। 

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের দেওয়া তথ্য বলছে ২৯ নভেম্বর কাছাড়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ৯ জন। ৩০ নভেম্বর তা বেড়ে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ১৭ জনের শরীরে। কিন্তু ১ ডিসেম্বর কাছাড়ে সংক্রমণের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। ১ ডিসেম্বর জেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩১ জন। যা কিছুটা হলেও উদ্বেগ বাড়িয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগের। বিষয়টা বাস্তবিক অর্থে উদ্বেগের মেনে নিয়েও অধ্যক্ষ ডা: বাবুলকুমার বেজবরুয়া বলেছেন, সংক্রমণ খুব ধীরগতিতে হলেও বাড়ছে। নমুনা পরীক্ষার হিসেবে আক্রান্তের সংখ্যা খুব বেশি না হলেও শীত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে হবে। সরকার টেস্টের সংখ্যা বাড়ালে আসল ছবিটা বোঝা যাবে। তবে শীতের এই সময়ে চরম সতর্ক থাকতে হবে সাধারণ মানুষকে।

এখানেই না থেমে অধ্যক্ষ ডা: বাবুলকুমার বেজবরুয়া বলেছেন, আপাত দৃষ্টিতে দেখলে ১ ডিসেম্বর কাছাড়ে র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট হয়েছে ২০৬৬ টি। এরমধ্যে ২৫ জন আক্রান্ত হওয়ায় র‍্যাপিডে সংক্রমণের হার দাঁড়িয়েছে ১.২১ শতাংশ। ফলে শীতের এই সময়ে সাধারণ মানুষকে খুব বেশি সচেতন থাকতে পরামর্শ দিচ্ছেন ডাক্তার বেজবরুয়া। সংক্রমণের হার যদি এক বা দেড় শতাংশ থেকে বাড়ে আগামী দুই মাস, তাহলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসছে এ কথা বলা যাবে। 

এদিকে দেখা গেছে, কাছাড়ে ২ ডিসেম্বর করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ জন। ৩ ডিসেম্বর ১৫, ৪ ডিসেম্বর ১৭ এবং ৫ ডিসেম্বর শনিবার সংক্রমণ ধরা পড়েছে ১৮ জনের শরীরে। ফলে নভেম্বরের শেষ সপ্তাহের তুলনায় ডিসেম্বরের শুরুতেই বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। ৪ ডিসেম্বর শুক্রবার শিলচর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে শুক্লা দস্তিদার নামে করোনা আক্রান্ত এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে। 

অন্যদিকে, আক্রান্তরা এসে ভর্তি হওয়ায় সরকারি চিকিৎসালয়ের পাশাপাশি শীতের শুরুতেই শনিবার ফের সবকটি বেড ভর্তি হয়ে গেছে শিলচর মেহেরপুরের বেসরকারি গ্রিনহিলস নার্সিংহোমে। গ্রিনহিলস-এর কর্ণধার রুদ্র নারায়ণ গুপ্ত জানিয়েছেন, গত একমাস ধরে আমাদের হাসপাতালে করোনা রোগীর সংখ্যা ৪,৫ এ নেমে এসেছিল। দু-একদিন মাত্র একজন রোগী ভর্তি ছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করেই শনিবার হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডের মোট ১৫ টি বেডই ফুলফিল হয়ে গেছে। নতুন করে ভর্তি হয়েছেন করোনা রোগী। এর মধ্যে কাছাড়ের ১৩, করিমগঞ্জের ১ ও  ত্রিপুরা ধর্মনগরের ১ জন কোভিড আক্রান্ত রয়েছেন।