BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Tuesday, 11 May 2021  মঙ্গলবার, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

ক্ষমা না চাইলে আর বরাকে নয়, আজমলকে হুঁশিয়ারি বিজেপির

Bartalipi, বার্তালিপি, ক্ষমা না চাইলে আর বরাকে নয়, আজমলকে হুঁশিয়ারি বিজেপির

শিলচর বিমানবন্দরে তাঁর সমর্থকরা পাকিস্তান জিন্দাবাদ ধ্বনি দিয়ে সরাসরি দেশদ্রোহিতার অপরাধ করেছে। এই দেশ বিরোধী স্লোগান দেওয়ার জন্য এআইইউডিএফ সুপ্রিমো বদরুদ্দিন আজমল প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাইলে তাঁকে বরাক উপত্যকায়  আর ঢুকতে দেওয়া হবে না। শনিবার ছাত্র সংগঠন আকসার ডাকা বনধ চলাকালীন বিশাল ধিক্কার মিছিল বের করে আজমলের বরাক সফরের মধ্যেই এআইইউডিএফ দলকে কড়া বার্তা দিয়েছে বিজেপি কাছাড় জেলা কমিটি। একুশের বিধানসভা ভোটকে সামনে রেখে কংগ্রেস-ইউডিএফ আঁতাতের সম্ভাবনা নিয়ে রাহুল গান্ধীর দলের বিরুদ্ধেও আক্রমণ শানিয়েছে বিজেপি

 

দলের জেলা সভাপতি কৌশিক রার নেতৃত্বে এদিন দুপুরে বিজেপির ইটখোলা কার্যালয় থেকে বিশাল মিছিল বের করে প্রেমতলায় পৌছে পাকিস্তান মুর্দাবাদ ধ্বনি দিয়ে কুশপুতুল পোড়ানো হয়েছে সাংসদ বদরুদ্দিন আজমল ও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রিপুন বরার। বিজেপি আওয়াজ তুলেছে দেশদ্রোহী স্লোগান দিয়ে বরাক উপত্যকায় মানুষের মধ্যে চরম অশান্তি সৃষ্টি করার যে পদক্ষেপ নিয়েছে আজমল সহ কংগ্রেসের সমর্থকরা, এর জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে বদরুদ্দিন আজমলকে। ক্ষমা চাইতে হবে কংগ্রেস নেতা রিপুন বরাকেও। মিছিলে বদরুদ্দিন আজমলকে হাঁটু গেড়ে ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুলেছেন শিলচরের বিধায়ক দিলীপ কুমার পাল।

 

বিশাল মিছিল থেকে কৌশিক রাই, কণাদ পুরকায়স্থ, দীপায়ন চক্রবর্তীদের হুঁশিয়ারি, এআইইউডিএফ ও কংগ্রেস সমর্থকদের এই দেশবিরোধী অবস্থানের জন্য কড়া ব্যবস্থা নিতেই হবেতবে আজমলের সমর্থকরা আদৌ ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ ধ্বনি দিয়েছেন কি না তার যাচাই বা প্রকৃত তদন্তের দাবি অবশ্য জানাননি বিজেপি নেতারা।  এ দিন বন্‌ধের মধ্যে করোনা-বিধির তোয়াক্কা না করে, কেবল রাজনীতির হুঁশিয়ারি দিয়ে গেছেন বিজেপি নেতারা।




রিপুন বরা, বদরুদ্দিন আজমলের কুশপুতুল পোড়াচ্ছেন বিজেপি কর্মীরা 


কৌশিক রাই, কণাদ পুরকায়স্থ, দীপায়ন চক্রবর্তীরা ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন, এভাবে পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দেওয়া মানেই প্রকাশ্যে রাষ্ট্রের বিরোধিতা। এই স্লোগান দিয়ে এআইইউডিএফ প্রমাণ করে দিয়েছে তারা ভারতবর্ষে থেকেও রাষ্ট্রহিতের চিন্তা করে না। রাষ্ট্রবিরোধীদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে কীভাবে ভারতবর্ষের ক্ষতি করা যায়, বিভেদ সৃষ্টি করা যায়, এই চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে। এখানে ভারতবর্ষের কোনও স্থান নেই। কৌশিক রায় বলেন, আমরা এই কাণ্ডের ধিক্কার জানাই। রাষ্ট্রবিরোধী স্লোগান দেওয়ায় এআইইউডিএফ দলের আসল চেহারা প্রকাশ্যে এসেছে। কেবল তাই নয়, কংগ্রেসও রাষ্ট্রবিরোধী শক্তির সঙ্গে হাত মিলিয়ে দেশ-বিরোধিতায় লিপ্ত হতে চাইছে। ফলে কংগ্রেসের মুখোশও খুলে গেছে।

 

শিলচরের বিধায়ক দিলীপ কুমার পাল বলেন, এইউডিএফ এর জন্মই হয়েছে রাষ্ট্রবিরোধী চিন্তাধারা থেকে। এদের উদ্দেশ্যই হচ্ছে সব দেশবিরোধী শক্তির সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভারতের ক্ষতিসাধন করা। কিন্তু ভারতবর্ষে থেকে, এখানে খেয়ে-পরে পাকিস্তান জিন্দাবাদ ধ্বনি দিয়ে কেউ পার পাবে না। বরাক উপত্যকার সাধারণ জনতাকে এমন রাষ্ট্র বিরোধী দল থেকে সতর্ক করার জন্যই এই ধিক্কার মিছিলের আয়োজন বলে উল্লেখ করেন তিনি।