হাইলাকান্দি ঢুকতে জরি কোভিড টেস্ট! আজব নিয়মে ফুঁসছেন সাধারণ মানুষ

হাইলাকান্দি-ঢুকতে--জরি-কোভিড-টেস্ট!--আজব-নিয়মে-ফুঁসছেন-সাধারণ-মানুষ
হাইলাকান্দি ঢুকতে জরি কোভিড টেস্ট! আজব নিয়মে ফুঁসছেন সাধারণ মানুষ

বাৰ্তালিপি প্ৰতিবেদন, হাইলাকান্দি, ২৩ নভেম্বর : একেই হয়তো বলে হাকিম নড়লেও, হুকুম নড়ে না৷ ভিন রাজ্য থেকে আসা যাত্ৰীদের জন্যও যেখানে কোভিড টেস্ট বাধ্যতামূলক নয়, সেখানে হাইলাকান্দি জেলায় প্ৰবেশ করতে হলেই এই টেস্ট করাতে হচ্ছে৷ জেলার প্ৰবেশপথ ধলেশ্বর পয়েন্টে নতুন করে শুরু হওয়া র্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট নিয়ে যাত্ৰীদের মধ্যে বিভ্ৰান্তি সৃষ্টি হয়েছে৷ রাজ্যে জারি এসওপি-র বাইরে গিয়ে এই টেস্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ৷রাজ্যের মুখ্যসচিব সম্প্ৰতি হাইলাকান্দি সফরের সময়ে ‘উৎসবের পর সংক্রমণ বাড়তে পারে, তাই প্ৰয়োজনে জেলার সীমান্তে ফের টেস্ট শুরু করা যেতে পারে’ এমন মৌখিক কথার উপর ভিত্তিতেই নাকি জেলায় এই উদ্ভট নিয়ম চালু হয়েছে৷ হুকুম যেহেতু হয়েছে হাকিমের, তাই সব নিয়ম নীতিকে পাশে রেখেই তা পালন করা হচ্ছে অক্ষরে অক্ষরে৷

সারা রাজ্যেই কোভিড  ভ্যাকসিনেশনের সাৰ্টিফিকেট থাকা ব্যক্তিদের টেস্ট থেকে রেহাই দেওয়া হলেও হাইলাকান্দি স্বাস্থ্য বিভাগ সরকারি এই এসওপি মানছে না৷ ধলেশ্বর পয়েন্টে ব্যক্তিগত বাহনগুলো থামিয়ে জোর করেই টেস্ট হচ্ছে যাত্ৰীদের৷ বহিৰ্জেলা থেকে হাইলাকান্দি যেতে হলেই প্ৰতিটি বাহনের যাত্ৰীদের জন্য এই টেস্ট বাধ্যতামূলক করা হয়েছে৷ রেহাই পাচ্ছেন না দু’ডোজ ভ্যাকসিন নেওয়া সরকারি কৰ্মচারীরাও৷ শুধু তা-ই নয়, সকালে কারও হাইলাকান্দিতে প্ৰবেশের সময় র্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট হলেও বিকেলে ফের ধলেশ্বর পয়েন্টে গাড়ি থামিয়ে একই টেস্ট করছে স্বাস্থ্য বিভাগ৷ বিভাগীয় এই হঠকারী নিয়মের বিদ্ধে অনেক সরকারি কৰ্মচারী বৰ্তমানে ক্ষোভে ফুঁসছেন৷

কৰ্মসূত্ৰে শিলচর থেকে প্ৰতিদিন হাইলাকান্দি যান রাহুল বিশ্বাস৷ সরকারি এই কৰ্মচারী জানান, গত ১৫-২০ দিন থেকে ধলেশ্বর পয়েন্টে পুনরায় কোভিড টেস্ট শুরু হয়েছে৷ পুলিশ লাগিয়ে রীতিমতো জোর-জবরদস্তি যাত্ৰীদের অ্যান্টিজেন টেস্ট করানো হচ্ছে৷ করিমগঞ্জ, কাছাড় সহ রাজ্যের অন্য কোনও জেলায় প্ৰবেশ করতে র্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের নিৰ্দেশ নেই৷ নেই এমন এসওপিও৷ অথচ, হাইলাকান্দি যেতে হলে এই টেস্ট বাধ্যতামূলক বলে জানাচ্ছে পুলিশ৷ হেঁটে যাওয়া ব্যক্তিদের ছেড়ে দেওয়া হলেও বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে হাইলাকান্দিতে প্ৰবেশে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের টেস্ট করতেই হচ্ছে৷ রাহুলবাবুর আরও বক্তব্য, ভ্যাকসিনের দুই ডোজ নেওয়া ব্যক্তিদের দেশের বিভিন্ন বিমানবন্দরেও টেস্ট থেকে রেহাই দেওয়া হচ্ছে৷ কিন্তু এ ক্ষেত্ৰে ব্যতিক্রম হাইলাকান্দি৷ তবে, কার নিৰ্দেশে এই টেস্ট পুনরায় শু হয়েছে, সেই প্ৰরে উত্তর নেই স্বাস্থ্য কৰ্মীদের কাছে৷ স্বাস্থ্যকৰ্মীরা ঊৰ্ধ্বতন আধিকারিকের নিৰ্দেশের কথা বলেই সবাইকে এক প্ৰকার বাধ্য করছেন৷

এ দিকে, হাইলাকান্দিকে সম্পূৰ্ণভাবে করোনা-মুক্ত করতে জেলার প্ৰবেশপথ ধলেশ্বর পয়েন্টে নতুন করে র্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু হয়েছে বলে জানান জেলা ইমুনাইজেশন আধিকারিক কেটিএস রংমাই৷  দুৰ্গাপূজা এবং দীপাবলির পর আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি হওয়ার আশঙ্কাকে সামনে রেখে এই প্ৰক্রিয়া শুরু হয়েছিল৷ তবে, ভ্যাকসিনের দু’ডোজ নেওয়া ব্যক্তিদের এই টেস্ট বাধ্যতামূলক নয়৷ তিনি আরও জানান, নতুন এসওপি অনুযায়ী কোনও ব্যক্তি যদি কোভিড আক্রান্ত হন তা হলে তাঁকে হোম আইসোলেশনে রাখা হবে৷ সম্পূৰ্ণ বিনামূল্যে তাঁর ঘরেই ওষুধ পাঠাবে স্বাস্থ্য বিভাগ৷



Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Total 65 Posts. View Posts


About us

প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার যুগে খবরের সত্যতাটির পক্ষপাতদামুক্ত উদ্যোগ / দীক্ষা প্রয়োজন। ক্লান্তিকর সংবাদগুলি আর সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে না। অভ্যন্তরীণ খবরে বৈশ্বিক কোণ থেকে বর্ণিত করার লক্ষ্যে, "বার্তালাপি ডিজিটাল" ডিজিটাল সাংবাদিকতার মাঠে প্রবেশ করেছে। শিরোনামের মিশ্রণটি তার লক্ষ্য এবং লক্ষ্যটির স্ব-ব্যাখ্যামূলক। বৈশিষ্ট্যগুলি, নিউজফ্ল্যাশগুলি এর মাধ্যমে একটি প্ল্যাটফর্মে সমস্ত সিঙ্ক করা হয়, এটি বারাকের নেটিজেনদের একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আভা দেয়। বার্তালাপি ডিজিটাল তাই ডিজিটাল ভারসাম্য পূরণের প্রতিশ্রুতি দেয় যা এটি ডিজিটাল বিবর্তনের যুগে একটি সংবাদ সংস্থা হিসাবে চিহ্নিত করবে




Follow Us