BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর
Wednesday, 21 Apr 2021  বুধবার, ৭ বৈশাখ ১৪২৮
Bartalipi, বার্তালিপি, Bengali News Portal, বাংলা খবর

BARTALIPI, বার্তালিপি , Bengali News, Latest Bengali News, Bangla Khabar, Bengali News Headlines, বাংলা খবর

বাংলা খবর

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বাংলা নিউজ পোর্টাল

নিয়মিত হাঁটলে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি কমে

Bartalipi, বার্তালিপি, নিয়মিত হাঁটলে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি কমে

তবে শুধু হাঁটলে হবে তা না, কিছু নিয়মকানুন মানতে হবে।

করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে সুস্থ্যতার জন্য সচেতনাতাই আগে জরুরি।সুস্থ থাকতে হাঁটার কোনও বিকল্প নেই। হাঁটলে শরীরের প্রতিটি কোষে অক্সিজেন পৌঁছায়। ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেড়েযায়। সহজেই অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি কমে আসে। আর শারীরিক পরিশ্রমের সবচেয়ে সহজ পন্থা হলো হাঁটা। নিয়ম করে সকালে বা বিকেলে হাঁটতে পারেন। যত বেশি হাঁটবেন ততই আপনার স্টেপ কাউন্ট বাড়বে আর কমবে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি।

এর আগেও হাঁটার ওপর অনেক গবেষণা চালানো হয়েছে। এ গবেষণায় অংশগ্রহণকারীরা ছিলেন বয়স্ক ও দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত। এই গবেষণায় অংশ নেন ৪০ ও তদূর্ধ্ব বয়সের ৪ হাজার ৮০০ মানুষ। প্রত্যেক অংশগ্রহণকারী সর্বোচ্চ সাত দিন ‘অ্যাক্সেলেরোমিটার’ পরিধান করেছেন।

একটি জার্নালে হাঁটার ওপর এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। গবেষকরা বলেছেন, হাঁটার গতি যেমনই হোক, একদিনে একজন মানুষের স্টেপ কাউন্টের সংখ্যার সঙ্গে তার মৃত্যুঝুঁকির গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আছে। গবেষণার প্রধান যুক্তরাষ্ট্রের ‘ন্যাশনাল ক্যান্সার ইনস্টিটিউটের (এনসিআই) পেদ্রো সেইন্ট মরিস বলেন, হাঁটা শরীরের জন্য খুবই উপকারী– এটা আমাদের অনেকের জানা। তবে ঠিক কতগুলো ‘স্টেপ কাউন্ট’ মৃত্যুর ঝুঁকি কমাতে পারে তা আমরা অনেকেই জানি না। তিনি বলেছেন, কতটুকু গতিতে হাঁটা জরুরি তা আমাদের অজানা ছিল। এ বিষয়টি ভালোকরে খতিয়ে দেখতেই এই গবেষণা।

তবে শুধু হাঁটলে হবে তা না, কিছু নিয়মকানুন মানতে হবে। প্রচুর জল খেতে হবে। হাঁটার পর এক ঘণ্টার মধ্যেই কিছু খেয়ে নিতে হবে। হাঁটার সময় অবশ্যই ঢিলেঢালা পোশাক এবং উপযুক্ত জুতো পরে হাঁটা উচিত। প্রতিদিন হাঁটার ফলে যেমন শরীর ও মন সুস্থ এবং প্রাণবন্ত থাকে তেমনি হাঁটার সময় গতির দিকটাও দেখা দরকার। ব্যায়ামের ফলে সহজেই জীবন থেকে ওষুধের দাপট সরিয়ে ফেলা যায়। আর সবচেয়ে সহজ পদ্ধতির ব্যায়াম হলো হাঁটা, তাই সকলের উচিত প্রতিদিন ব্যস্ত জীবনের মধ্যে থেকেই একটু সময় বার করে হাঁটা।

 

হাঁটার উপকারীতা

  • উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে
  • ডায়াবেটিস কমাতে সাহায্য করে
  • শরীরে পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি থাকলে অনায়াসেই রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বেড়ে যায়
  • ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে
  • হাড়ের ক্ষয়রোগ জয়েন্টে ব্যথার ঝুঁকি কমে
  • হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঝুঁকি কমে
  • পায়ের শক্তি এবং পেশী শক্তি বৃদ্ধি হয়
  • স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি পায়
  • স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়
  • ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস করে
  • মন মেজাজ ভালো রাখে