বেরেঙ্গা গুলি কাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত আলাউদ্দিনকে বড়খলা থেকে গ্রেপ্তার

বেরেঙ্গা-গুলি-কাণ্ডের-অন্যতম-অভিযুক্ত-আলাউদ্দিনকে-বড়খলা-থেকে-গ্রেপ্তার
বার্তা লিপি প্রতিবেদন, শিলচর,১০ সেপ্টেম্বর: গত ১৩ আগস্ট শুক্রবার রাত্রে বেরেঙ্গা দ্বিতীয় খন্ডে সংঘ

বার্তা লিপি প্রতিবেদন, শিলচর,১০ সেপ্টেম্বর: গত ১৩  আগস্ট শুক্রবার রাত্রে বেরেঙ্গা দ্বিতীয় খন্ডে সংঘটিত গুলি চালানোর ঘটনার অন্যতম অভিযুক্ত আলাউদ্দিন লস্কর ওরফে আলাকে অবশেষে গ্রেফতার করল পুলিশ। বড়খলার  চাঁন্দপুরে এক বাড়িতে আত্মগোপন করে থাকা অবস্থায় বৃহস্পতিবার গভীর রাত্রে শিলচর সদর থানার পুলিশ গ্রেফতার করে আলাকে ‌। গ্রেফতারের পর শুক্রবার  আলাউদ্দিনকে পেশ করা হয় আদালতে । আদালতের অনুমতিতে  তিন দিনের জন্য তাকে পুলিশের জিম্মায় নেওয়া হয়।

    উল্লেখ্য যে গত ১৩  আগস্ট শুক্রবার রাত্রে বেরেঙ্গা দ্বিতীয় খন্ডে সংঘটিত হয়েছিল গুলি চালানোর ঘটনার ঘটনা।  এতে  গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছিল বেরেঙ্গা গাও পঞ্চায়েতের সভানেত্রী সাবিনা ইয়াসমিন বেগমের প্রতিনিধি তথা তার স্বামী  নাজিব হোসেন বড়ভুঁইয়া ( বাপু), নাজিম উদ্দিন লস্কর ও রত্না বেগম লস্কর ।  ঘটনার পরের দিন সাবিনা ইয়াসমিন শিলচর সদর থানায় এজাহার দায়ের করে আলাউদ্দিন ও তার ছেলে কয়েস  লস্কর  সহ আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে ।  ওইদিন রাত্রে  হাতে বন্দুক নিয়ে আলাউদ্দিন গুলি  চালিয়েছিল  বলে  এজাহারে অভিযোগ করা হয়।  এজাহারের ভিত্তিক পুলিশ মামলা নথিভুক্ত করে কিছুদিন পর ডিব্রুগড়ের গ্রেহাম বাজার  থেকে গ্রেফতার করে কয়েস  লস্করকে ।  কিন্তু অন্যতম অভিযুক্ত আলাউদ্দিন গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। গ্রেফতারের ভয়ে ১৩  আগস্ট থেকে বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপন করেছিল আলাউদ্দিন। ‌ প্রতিনিয়ত আশ্রয়স্থান পরিবর্তন করার দরুন তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশ সফল  হয়নি। এরমধ্যে অভিযান চালিয়ে পুলিশ গত ৫ সেপ্টেম্বর রাত্রে  কাটিগড়া দুধপুরে উদ্ধার করে আলাউদ্দিনের  স্কুটি।


         বৃহস্পতিবার  বড়খলা থেকে  আলাউদ্দিনকে গ্রেপ্তারের পর বেরেঙ্গা গুলি কাণ্ডে তিনি জড়িত নয় বলে দাবি করে। গাঁও পঞ্চায়েত সভানেত্রী সাবিনা ইয়াসমিনের  স্বামী নাজিব হোসেনের নির্দেশে ওই দিন তার  লোক পরিচালনা করেছিল বলে  পালপাড়া পাল্টা অভিযোগ আলাউদ্দিনের । মালুগ্রাম এলাকার একজন বড় লোকের নির্দেশে  তাকে  এবং তার ছেলে কয়েসকে পুলিশ বিনা দোষে  গ্রেপ্তার করেছেন বলে অভিযোগ আলাউদ্দিনের । অনুরূপ অভিযোগ আলাউদ্দিনের স্ত্রী রত্না বেগম লস্করেও ।  ঘটনার 

  দিন রত্না বেগম গুলিবিদ্ধ হয়ে মেডিক্যালে ভর্তি হয়েছিলেন। পরবর্তীতে তিনিও নাজিব হোসেন সহ কয়জনকে গুলি চালানোর ঘটনায় অভিযুক্ত করে সদর থানায় দায়ের করেছিলেন এজাহার। কিন্তু পুলিশ আজ অবধি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করেনি। 

     

পুলিশের এক সূত্র জানিয়েছেন, দুই পক্ষের দায়ের করা  এজাহারের ভিত্তিত মামলা নথিভুক্ত করেই শুরু করা হয়েছে তদন্ত।  সমান্তরালভাবে তদন্ত এগিয়ে চলেছে। ‌ খোঁজ চলছে সব কয়েকজন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে।  ঘটনার দিন গুলি চালনা করা বন্দুকের সন্ধানেও খোঁজ চলছে।  এর সন্ধান বের করার জন্য ৩ দিনের রিমান্ডে আনা হয়েছে আলাউদ্দিনকে।



Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Total 39 Posts. View Posts


About us

প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার যুগে খবরের সত্যতাটির পক্ষপাতদামুক্ত উদ্যোগ / দীক্ষা প্রয়োজন। ক্লান্তিকর সংবাদগুলি আর সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে না। অভ্যন্তরীণ খবরে বৈশ্বিক কোণ থেকে বর্ণিত করার লক্ষ্যে, "বার্তালাপি ডিজিটাল" ডিজিটাল সাংবাদিকতার মাঠে প্রবেশ করেছে। শিরোনামের মিশ্রণটি তার লক্ষ্য এবং লক্ষ্যটির স্ব-ব্যাখ্যামূলক। বৈশিষ্ট্যগুলি, নিউজফ্ল্যাশগুলি এর মাধ্যমে একটি প্ল্যাটফর্মে সমস্ত সিঙ্ক করা হয়, এটি বারাকের নেটিজেনদের একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আভা দেয়। বার্তালাপি ডিজিটাল তাই ডিজিটাল ভারসাম্য পূরণের প্রতিশ্রুতি দেয় যা এটি ডিজিটাল বিবর্তনের যুগে একটি সংবাদ সংস্থা হিসাবে চিহ্নিত করবে




Follow Us