শিলচরের তোপখানায় মর্মান্তিক ঘটনা জলের ট্যাংকি সাফা করতে গিয়ে পিতা পুত্রসহ মৃত্যু ৩ শ্রমিকে

শিলচরের-তোপখানায়-মর্মান্তিক-ঘটনা-জলের-ট্যাংকি-সাফা-করতে-গিয়ে-পিতা-পুত্রসহ-মৃত্যু-৩-শ্রমিকে
বার্তা লিপি প্রতিবেদন,১০ সেপ্টেম্বর: শিলচরের অদূরবর্তী তোপখানা জলের ট্যাংকি সাফা করতে গিয়ে মৃত্যু

বার্তা লিপি প্রতিবেদন,১০ সেপ্টেম্বর:  শিলচরের অদূরবর্তী তোপখানা জলের ট্যাংকি সাফা করতে গিয়ে মৃত্যু ঘটলো ৩  শ্রমিকের। শোকাবহ এই দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়েছে শুক্রবার দুপুর নাগাদ ডের ঘটিকার সময়।‌ পিএইসই বিভাগের একটি নির্মীয়মান জল সরবরাহের  ট্যাংকি সাফা করতে গিয়ে সংগঠিত হয় এ করুণ ঘটনা।  টাংকির ভিতর কাজ করার সময় শ্বাসকষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু মৃত্যু ঘটে এক শ্রমিকের। মৃত শ্রমিকের নাম সেলিম উদ্দিন লস্কর (৪২) । এছাড়া সংকটজনক অবস্থায় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার সময় মৃত্যু হয় অন্য দুজন শ্রমিক নাজিম উদ্দিন মজুমদার (৪৬) ও  তার পুত্র  সোহেল আহমেদ মজুমদারের (১৭) এ ঘটনা নিয়ে তীব্র উত্তেজনা দেখা দেয়  তোপখানা প্রথম খন্ডের উত্তর পাড়ায় ‌ ।  পরে পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেট গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

     

    স্থানীয় লোক জানিয়েছেন, তোপখানা প্রথম খন্ডের উত্তর পাড়ায় পিএইসই বিভাগের অধীনে একটি জল-সরবরাহ প্রকল্পের  কাজ  চলছিল । পিএইস ই শিলচর ডিভিশন ১ এর অধীনে নির্মিত এই প্রকল্পের ঠিকাদার হাইলাকান্দির বাদল পাল। ঠিকাদারের অধীনে শুক্রবার ট্যাংকি  সাফা করা কাজে নিয়োগ করা হয়েছিল  বড়খলা জাতিংগা বদরপুর  প্রথম খন্ডের  দিনমজুর  সেলিম উদ্দিন লস্কর,  কুমারপাড়া- নিজয়নগরের নাজিম উদ্দিন মজুমদার ও তার ছেলে সোহেল আহমেদ মজুমদারকে। তারা তিনজনে সকালবেলা  ট্যাংকি সাফা করা কাজ শুরু করে।  ১০-১২ ফুট  গভীর ট্যাংকির নিচে জমা জল বাইরে করার জন্য তারা ব্যবহার করেছিল মোটর পাম্প। ট্যাংকির ভিতরে মোটর পাম্প লাগিয়ে তারা জল বের করেছিল। কাজ করতে করতে  একসময় শ্রমিকরার শ্বাসকষ্টে সমস্যা দেখা দেয়। খুব সম্ভব ভিতরে মোটর পাম্প লাগানোর জন্য টাংকির ভিতর অক্সিজেনের পরিমাণ কমে যায় । যার দরুন শ্বাসকষ্টে  সমস্যাই দেখা দেয় । কিছু সময় তারা চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে।  এরমধ্যে অজ্ঞান হয়ে পড়ে সেলিম উদ্দিন। তারার চিৎকার চেঁচামেচি শুনে টাংকির পাশে ছুঁটে আসে আশপাশের লোকেরা। সঙ্গে সঙ্গে ট্যাংকির ভিতরে থকে উদ্ধার করা হয় ৩ জন শ্রমিককে। কিন্তু উপরে তুলে আনার পরে মৃত্যু ঘটে সেলিম উদ্দিনের। অজ্ঞান হয়ে পড়া নাজিম উদ্দিন ও সোহেল আহমেদকে সংকটজনক অবস্থায় নিয়ে শিলচর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। কিন্তু হাসপাতাল পাওয়ার পরে চিকিৎসক তাদেরকে ( পিতা পুত্র ) মৃত ঘোষণা করে।


     এদিকে, ৩  শ্রমিকের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর  অকুষ্ট স্থলে জড়ো হয় কয়েকশো লোক। শ্রমিক তিনজনের মৃত্যুর জন্য ঠিকাদারকে দায়ী করে তারা শুরু করে প্রতিবাদ।  মৃতদেহ নিয়ে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে সরব হয়ে উত্তেজিত জনতা  স্লোগানও দিতে থাকেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান অরুণাচল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ গৌরঙ্গ নাথ ও শিলচর সদর থানার ওসি দিপুল কুমার বড়ো। পুলিশ সেলিম উদ্দিনের মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য নিতে চাইলে উত্তেজিত জনতা এতে বাধা প্রদান করে। তাদের দাবি, তিনজন শ্রমিকের নিকটাত্মীয় পরিবারকে ১০ লক্ষ  টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ঠিকাদার। এতে দেখা দেয় তীব্র উত্তেজনা । স্থানীয়দের অভিযোগ- ঠিকাদারের চূড়ান্ত গাফিলতির জন্য মৃত্যু হয়েছে ৩ শ্রমিকের। পর্যাপ্ত সুবিধা ছাড়াই শ্রমিকদেরকে কাজে লাগিয়েছে ঠিকাদার। গতিকে, শ্রমিক তিনজনের মৃত্যুর জন্য সম্পূর্ণ দায়ী ঠিকাদার। ঠিকাদার ঘটনাস্থলে না আসা পর্যন্ত  মৃতদেহ দিতে তারা আপত্তি জানায়।  তোপখানা, বদরপুর- মাছিমপুর  ও কুমারপাড়া - নিজ জয়নগর গাও পঞ্চায়েতের সভাপতি ক্রমে মিয়াখান, মঞ্জু গোয়ালা ও ফরিদা পারবিনরা প্রতিবাদ স্হলে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, শ্রমিকের গাফিলতির জন্য যেহেতু শ্রমিক ৩  জনের মৃত্যু হয়েছে, গতিকে মৃত্যুর দায় ঠিকাদারকে নিতেই হবে। পাশাপাশি প্রত্যেক জন শ্রমিকের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে দিতে হবে ১০ লক্ষ করে  টাকা।  শ্রমিক তিনজনের মৃত্যুর পর তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে কয়েকজন প্রতিবাদী বলেন, শ্রমিক তিনজনের মৃত্যুর জন্য যেহেতু ঠিকাদারেই দায়ী, গতিকে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে হত্যার  মামলা নথিভূক্ত  করে শীঘ্রই তাক গ্রেপ্তার করার জন্য প্রশাসনের কাছে দাবি জানানো হয় ।


      এভাবে  ঘন্টা দুয়েক

প্রতিবাদ করার পর ঘটনাস্থলে হাজির হন  ম্যাজিস্ট্রেট ঋতুরাজ গগৈ, ঠিকাদারের কর্মচারী ও বিভাগীয় ইঞ্জিনিয়ার অশোক চৌধুরী। ঠিকাদারের পক্ষ থেকে আগামীকাল শনিবার ১ লক্ষ করে মৃত ৩ জন শ্রমিকের পরিবারকে ৩ তিন লক্ষ টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি প্রদান করা হয়।  আপাতত ৩ লক্ষ  টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি পেয়ে  প্রত্যাহার করা হয় প্রতিবাদ। তারপরে, ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়  মৃতদেহ  । বর্তমান মেডিকেলে রাখা হয়েছে শ্রমিক তিনজনের মৃতদেহ। শনিবার মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করা হবে ।



Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Total 29 Posts. View Posts


About us

প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার যুগে খবরের সত্যতাটির পক্ষপাতদামুক্ত উদ্যোগ / দীক্ষা প্রয়োজন। ক্লান্তিকর সংবাদগুলি আর সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে না। অভ্যন্তরীণ খবরে বৈশ্বিক কোণ থেকে বর্ণিত করার লক্ষ্যে, "বার্তালাপি ডিজিটাল" ডিজিটাল সাংবাদিকতার মাঠে প্রবেশ করেছে। শিরোনামের মিশ্রণটি তার লক্ষ্য এবং লক্ষ্যটির স্ব-ব্যাখ্যামূলক। বৈশিষ্ট্যগুলি, নিউজফ্ল্যাশগুলি এর মাধ্যমে একটি প্ল্যাটফর্মে সমস্ত সিঙ্ক করা হয়, এটি বারাকের নেটিজেনদের একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আভা দেয়। বার্তালাপি ডিজিটাল তাই ডিজিটাল ভারসাম্য পূরণের প্রতিশ্রুতি দেয় যা এটি ডিজিটাল বিবর্তনের যুগে একটি সংবাদ সংস্থা হিসাবে চিহ্নিত করবে




Follow Us