নিমাতী ঘাট নৌকাডুবির পরে রাজ্যে ব্যক্তিগত সিঙ্গেল ইঞ্জিন চালিত নৌকা চলাচলে নিষেধাজ্ঞা খুব শ

নিমাতী-ঘাট-নৌকাডুবির-পরে-রাজ্যে-ব্যক্তিগত-সিঙ্গেল-ইঞ্জিন-চালিত-নৌকা-চলাচলে-নিষেধাজ্ঞা--খুব-শ
গত বুধবার মাজুলীর নিমাতীঘাটে সংঘটিত করুন নৌকাডুবির ঘটনার পর এবার কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন রাজ্য

 গত বুধবার মাজুলীর নিমাতীঘাটে  সংঘটিত করুন  নৌকাডুবির ঘটনার পর  এবার কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন রাজ্যের পরিবহন বিভাগ। অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে রাজ্যের  সব কয়েকটি নদীতে যাতায়াত করা ব্যক্তিগত ফেরি ও নৌকার  চলাচল।  বৃহস্পতিবার এ নিয়ে নির্দেশ জারি করেছেন রাজ্য পরিবহণ বিভাগের সচিব  যাদব শইকীয়া। সিঙ্গেল ইঞ্জিন চালিত সব ধরনের ফেরি ও নৌকার চলাচল বন্ধ  করার নির্দেশ জারি করেছেন বিভাগের সচিব। অবশ্য, মেরিন ইঞ্জিন (গিয়ের যুক্ত ) ফেরি গুলিকে  এই নিষেধাজ্ঞা থেকে রেহাই দেওয়া হয়েছে। পুন:  নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে এই নির্দেশনা । এছাড়া মেরিন ইঞ্জিন ( ফেরিতে  চলাচল  করা যাত্রীদের সুরক্ষার জন্য  লাইফ জ্যাকেট, লাইফবয় রিঙ এবং ফায়ার এক্সটিংগুইশার মজুত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

 ইতিমধ্যে, এই নির্দেশনা রাজ্যের প্রত্যেক জেলার আভ্যন্তরীণ জল পরিবহন বিভাগের আধিকারিকদের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে।

 এদিকে, সিঙ্গেল ইঞ্জিন চালিত  ব্যক্তিগত ফেরি ও নৌকা চলাচল বন্ধ করার নির্দেশ জারির পর বিপাকে পড়েছেন  বরাক উপত্যকার আভ্যন্তরীণ জল পরিবহন বিভাগ ।   সিঙ্গেল ইঞ্জিন চালিত ফেরি ও নৌকা চলাচল বন্ধ করার নির্দেশ অন্যান্য জেলায় কার্যকরী  হলেও বরাক উপত্যকায় এই নির্দেশ কার্যকরী হবে কিনা এই নিয়ে বিপাকে পড়েছে বরাকের আভ্যন্তরীণ পরিবহন বিভাগ। কেননা বরাক উপত্যকার তিন জেলায় চলাচল করা  বেশিরভাগ নৌকায় সিঙ্গেল ইঞ্জিনচালিত।  বরাক উপত্যকায় থাকা বিভাগের ২২ টি ফেরিঘাটের মধ্যে  মেরিন ইঞ্জিন রয়েছে কেবল ৪ টি । বাকি সবগুলি সিঙ্গেল ইঞ্জিন যুক্ত  নৌকা। ৪ টি মেরিন ইঞ্জিন এর মধ্যে একটি নষ্ট হয়ে গেছে। বাকি তিনটি রয়েছে অন্নপূর্ণা ফেরিঘাট, ছোট দুধপাতিল ও গান্ধী ঘাটে।  বাকি ফেরিঘাট গুলিতে যাত্রী পারাপার করার জন্য রয়েছে সিঙ্গেল ইঞ্জিন যুক্ত  নৌকা । 

  আভ্যন্তরীণ জল পরিবহন বিভাগের এক সূত্র জানিয়েছেন,  বরাক উপত্যকার ২২ টি ফেরিঘাটের  জন্য রয়েছে ৪২ টি নৌকা। এর মধ্যে তিনটি হয়েছে মেরিন ইঞ্জিন। রাজ্য সরকারের বিভাগের সচিব যাদব শইকীয়া জারি করা এই নির্দেশ কার্যকরী করতে হলে অন্নপূর্ণা ফেরিঘাট, ছোট দুধপাতিল ও গান্ধী ঘাটকে বাদ দিয়ে বন্ধ করতে হবে সবগুলি ফেরিঘাট।  ফেরিঘাট গুলি বন্ধ করে দিলে ভীষন সমস্যায় পড়বে নৌকা যাত্রীরা । বিষয়টি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন অভ্যন্তরীণ জল-পরিবহন বিভাগের শিলচর ডিভিশনের কার্যবাহী অভিযন্তা দীপক কুমার চক্রবর্তী। ‌ কিভাবে বরাকের ফেরীঘাট গুলি বন্ধ করা যায় এ নিয়ে তিনি পরামর্শ চেয়েছেন বিভাগের  সঞ্চালকের‌ কাছে ‌। পরামর্শে তিনি  বার্তাও পাঠিয়েছেন বলে জানান।‌ বরাকের ফেরিঘাট গুলি বন্ধ করার জন্য অপেক্ষা করা হয়েছে সঞ্চালকের পরামর্শ। এরপরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান চক্রবর্তী।

    ফেরিঘাট গুলি বন্ধ করে দিলে ভীষণ সমস্যার সম্মুখীন হবে যাত্রীরা ।  প্রতি দিনে হাজার হাজার যাত্রী চলাচল করে একমাত্র নৌকার উপর নির্ভর করে।  বিভাগের এক সূত্র বলেন, কয়েকটি ফেরিঘাটে দৈনিক কয়েক হাজার যাত্রী পারাপার হয়। ‌ তিনি বলেন, সোনা বাড়ি ফেরিঘাটে দৈনিক দুই থেকে তিন হাজার,  গান্ধী ঘাট ও   ছোট দুধ পাতিলে দুই হাজার করে এবং অন্নপূর্ণা ঘাটে প্রায় দেড় হাজার জন যাত্রী নৌকার উপর নির্ভর করে চলাচল করে। তাছাড়া, মেরিন ইঞ্জিন চলাচল করা  ফেরিঘাট গুলিতেও  সৃষ্টি হবে সমস্যার। কারণ সিঙ্গল ইঞ্জিন চালিত নৌকা বন্ধ করে দিলে ৪০  থেকে ৫০ জন যাত্রী বহনের ক্ষমতা থাকা মেরিন ইঞ্জিন দিয়ে যাত্রী পারাপার সম্ভব হবে না।


    ব্যক্তিগত সিঙ্গেল ইঞ্জিন চালিত  নৌকাগুলি বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত কার্যকরী হলেও ফুলেরতল থেকে টিপাইমুখে  চলাচল করা নৌকাগুলি বন্ধ করতে সৃষ্টি হবে সমস্যার। পূর্বেও এরকম নির্দেশ জারি করার পরও সেখানের ফেরির মালিকরা বন্ধ করে দিন তাদের ফেরি গুলি। মনিপুর ও অসমের মধ্যে  বিভিন্ন  জিনিসপত্র আমদানি রপ্তানি কাজে ব্যবহার করা হয় এইসব নৌকা। মনিপুরের মালিকাধীন এইসব নৌকা বন্ধ করতে মোটেও রাজি হয়নি তারা। নৌকা গুলি বন্ধ করার জন্য পুলিশের সাহায্য সেই ও সফল হয়নি জল পরিবহন বিভাগ। তাই এবার জারি করা নতুন নির্দেশ কার্যকরী করার জন্য কাছাড় পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের  দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন সংশ্লিষ্ট বিভাগ।



Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Total 29 Posts. View Posts


About us

প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার যুগে খবরের সত্যতাটির পক্ষপাতদামুক্ত উদ্যোগ / দীক্ষা প্রয়োজন। ক্লান্তিকর সংবাদগুলি আর সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে না। অভ্যন্তরীণ খবরে বৈশ্বিক কোণ থেকে বর্ণিত করার লক্ষ্যে, "বার্তালাপি ডিজিটাল" ডিজিটাল সাংবাদিকতার মাঠে প্রবেশ করেছে। শিরোনামের মিশ্রণটি তার লক্ষ্য এবং লক্ষ্যটির স্ব-ব্যাখ্যামূলক। বৈশিষ্ট্যগুলি, নিউজফ্ল্যাশগুলি এর মাধ্যমে একটি প্ল্যাটফর্মে সমস্ত সিঙ্ক করা হয়, এটি বারাকের নেটিজেনদের একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আভা দেয়। বার্তালাপি ডিজিটাল তাই ডিজিটাল ভারসাম্য পূরণের প্রতিশ্রুতি দেয় যা এটি ডিজিটাল বিবর্তনের যুগে একটি সংবাদ সংস্থা হিসাবে চিহ্নিত করবে




Follow Us