বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবি সহ ১১ দফা দাবিতে করিমগঞ্জের রাজপথ কাপাল বামদল

বিতর্কিত-তিনটি-কৃষি-আইন-বাতিলের-দাবি-সহ-১১-দফা-দাবিতে-করিমগঞ্জের-রাজপথ-কাপাল-বামদল
বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবি সহ ১১ দফা দাবিতে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন জনবিরোধী নিতির

প্রতিনিধি, ফকিরবাজার, ১০ সেপ্টেম্বর।

বিতর্কিত তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবি সহ ১১ দফা দাবিতে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন জনবিরোধী নিতির বিরুদ্ধে করিমগঞ্জের রাজপথ কাপাল বামদল। সিপিআই-র করিমগঞ্জ জেলা কমিটির উদ্যোগে গতকাল করিমগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও ধর্ণা প্রর্দশন করেন প্রতিবাদীরা। এতে নেতৃত্ব দেন সিপিআই অসম রাজ্যিক কার্যকরী সদস্য চন্দন চক্রবর্ত,  করিমগঞ্জ জেলা কমিটির সম্পাদক রাগেন্দ্র চন্দ্র দাস, ও ছাত্র শাখার সভাপতি মোহাম্মদ জাকারিয়া। সকাল ১১ ঘটিকায় করিমগঞ্জ অফিস পাড়ায় দুই ঘণ্টা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন সিপিআই কর্মীরা। পরে এক বিশাল মিছিল বের করে শহরের রাজপথ কাঁপিয়ে তুলেন। মিছিল দিয়ে এসে জেলা শ্রম আধিকারিকের  কার্যালয় ঘেরাও করেন বিক্ষোভ কারিরা। সংবাদ মাধ্যমের সামনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সিপিআই নেতা চন্দন চক্রবর্তী কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন জনবিরোধী নিতির কঠোর নিন্দা জানান তিনি, বাম নেতা বলেন বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান কে যেভাবে ব্যক্তিগত মালিকানার হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে এতে সাধারণ জনগণের কোনো লাভ হবেনা। এ ছাড়া বরাকে প্রস্তাবিত মিনি সচিবালয় স্থাপন নিয়ে বিজেপি সরকার শুধু টালবাহানা করছে বলে মন্তব্য করেন তিনি‌। কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের উপর অন্যায় ভাবে তিনটি কালো আইন চাপিয়ে দিতে চাইছে বলেও বক্তব্য রাখেন চক্রবর্তী। অনতি বিলম্বে বিতর্কিত এই তিনটি আইন বাতিল করার জোরালো দাবি তুলেন বামনেতা। এদিকে রাজ্যব্যাপী উচ্ছেদ অভিযানকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার উচ্ছেদ আখ্যা দেন চক্রবর্তী তিনি বলেন বিজেপি যেই সব এলাকায় ভোট পায়নি বা কম পেয়েছে সেই সব এলাকায় উচ্ছেদ চালাচ্ছে। কৃষকদের জমির পাট্টা, মূল্যবৃদ্ধি রোধ ও কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর সমগ্র ভারত বনধ ডাকা হয়েছে, সেই বনধকে সফল করতে দেশের সর্বস্তরের মানুষের কাছে আবেদন রাখেন চন্দন চক্রবর্তী। এছাড়াও এদিন সংবাদ মাধ্যমের কাছে বক্তব্য রাখেন রাগেন্দ্র চন্দ্র দাস, মোহাম্মদ জাকারিয়া, সাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।



Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Bartalipi Digital Desk

Total 29 Posts. View Posts


About us

প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার যুগে খবরের সত্যতাটির পক্ষপাতদামুক্ত উদ্যোগ / দীক্ষা প্রয়োজন। ক্লান্তিকর সংবাদগুলি আর সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে না। অভ্যন্তরীণ খবরে বৈশ্বিক কোণ থেকে বর্ণিত করার লক্ষ্যে, "বার্তালাপি ডিজিটাল" ডিজিটাল সাংবাদিকতার মাঠে প্রবেশ করেছে। শিরোনামের মিশ্রণটি তার লক্ষ্য এবং লক্ষ্যটির স্ব-ব্যাখ্যামূলক। বৈশিষ্ট্যগুলি, নিউজফ্ল্যাশগুলি এর মাধ্যমে একটি প্ল্যাটফর্মে সমস্ত সিঙ্ক করা হয়, এটি বারাকের নেটিজেনদের একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আভা দেয়। বার্তালাপি ডিজিটাল তাই ডিজিটাল ভারসাম্য পূরণের প্রতিশ্রুতি দেয় যা এটি ডিজিটাল বিবর্তনের যুগে একটি সংবাদ সংস্থা হিসাবে চিহ্নিত করবে




Follow Us